মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৩:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
 কুষ্টিয়ায় ডোপ টেস্টে মাদক সেবনের প্রমাণ পাওয়ায় চাকরি হারিয়েছেন যে ৮ পুলিশ সদস্য কুষ্টিয়া আন্তঃজেলা ছিনতাইকারী ও ডাকাত দলের মূলহোতাসহ আটক ৩, করোনায় আক্রান্ত আলহাজ্ব বশির আহম্মেদ, সকলের নিকট দোয়া প্রার্থী কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা’র মা সাহারা বেগমের দাফন সম্পন্ন তোমার বাড়ি কুষ্টিয়া! কুষ্টিয়ায় বাংলাদেশ হ্যান্ডবল ফেডারেশনের উদ্যোগে সমাপনী অনুষ্ঠান ও সনদ বিতরন দৌলতপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত ভিজিডির চাল আত্মসাত, রিফাইতপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু কারাগারে ধান কুড়ানোয় মেতেছে কুষ্টিয়ার গ্রামীন শিশুরা কুষ্টিয়ায় শিশু ধর্ষণ মামলায় কিশোর গ্রেফতার

বিআরবি গ্রুপে করোনার বিস্ফোরণ,৭ দিনে ৩ জনের মৃত্যু: চিকিৎসা পাচ্ছে না আক্রান্তরা

নিজস্ব প্রতিনিধি / ২৫১ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৭ জুলাই, ২০২০, ১০:৫৬ পূর্বাহ্ন




কুষ্টিয়ার বিসিক শিল্পনগরীতে অবস্থিত কেবল সহ বিভিন্নপন্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান বিআরবি গ্রুপ অব ইন্ডাষ্ট্রিজে করোনার বিস্ফোরণ ঘটেছে। গত ৭ দিনে বিআরবি’র ৩ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। যারা সবাই করোনা আক্রান্ত ছিলেন। বিআরবির গ্রুপের মালিকানাধীন বিশেষায়িত হাসপাতাল থাকলেও বিআরবির কুষ্টিয়ায় কর্মরত কোন কর্মকর্তা কর্মচারী চিকিৎসা পাচ্ছেন না সেখানে।

 

কুষ্টিয়ার কারখানায় আক্রান্তরা সবাই নিজ নিজ বাড়িতে নিজ উদ্যোগে চিকিৎসা নিচ্ছেন। বিআরবি গ্রুপ অব ইন্ডাষ্ট্রিজের শতাধিক কর্মী করোনা আক্রান্ত হলেও করোনা নিয়েই কাজ করে যাচ্ছেন তারা। চাকুরী হারানোর ভয়ে শরীরের অসুস্থ্যতাকে গোপন করছেন। যে সকল কর্মকর্তা কর্মচারী বিআরবিতে চাকুরী করেন তাদের সকলের জামানতের টাকা জমা আছে বিআরবি গ্রুপে।

 

গত ২৮ ফ্রেরুয়ারী এক সাথে চাকুরীচ্যুত করা হয় ২৯ জনকে। তাদের সকলেই জামানতের টাকা ফেরত চেয়ে আবেদন করলেও তা এখনও ফেরত দেয়া হয়নি বলে জানা গেছে।

 

 

নামপ্রকাশ না করার শর্তে একাধিক কর্মকর্তা কর্মচারী জানিয়েছেন, বিআরবিতে কর্মরত শতকরা ২০ ভাগ শ্রমিক ,কর্মচারী করোনা আক্রান্ত। করোনা আক্রান্ত হয়ে সুস্থ্য হওয়ার পর চাকুরীতে যোগদান করতে না দেওয়ায় এখন যারা আক্রান্ত তারা আর পরীক্ষা করাচ্ছেন না। বাড়িতে বসেই বিভিন্ন ডাক্তারের পরামর্শে ঔষধ খাচ্ছেন আর অফিস করছেন। গত ২৯ জুন বিআরবিতে কর্মরত অবস্থায় মারা যান হিসাব বিভাগের সহ ব্যবস্থাপক আলী আহমদ লিটন। তিনি সকালে অফিসে হাজিরা দিয়ে অফিসের কাজে অফিসের গাড়িতে খুলনায় যাওয়ার প্রস্ততি নিচ্ছিলেন। গাড়িতে তিনি ওঠেন ঠিকই কিন্তু সেই যাত্রা তার শেষ যাত্রা হয়। অফিসের গেটে গাড়িতে উঠে তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। গাড়িটি খুলনায় না গিয়ে যায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে। তারপর লিটনের চৌড়হাসের বাড়িতে।

 

 

২ জুলাই করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যায় ষ্টোর অফিসার ফজলুল হক। ৫ জুলাই কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন আইটি অফিসার আমজাদ হোসেন জুয়েল। আজ ৭ জুলাই সকালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া বিআরবির হিসাব বিভাগের কর্মকর্তা লিটনের মা ও করোনায় মারা গেছেন।

 

যারা চাকুরী হারানোর ভয় ছেড়ে দিয়ে জীবন বাঁচানোর চেষ্টা করছেন শুধুই তারাই পরীক্ষা করাচ্ছেন।

 

কুষ্টিয়ার পিসিআর ল্যাবের তথ্যমতে,বিআরবির ডেপুটি ম্যানেজার মহিউদ্দিন ও তুহিনুল আলম, কোয়ালিটি কন্ট্রোল অফিসার আব্দুল জলিল,আইটি বিভাগের এজিএম মাহাফুজ আলী জনি, ইঞ্জিনিয়ার সালাউদ্দিন, পার্সেস অফিসার কাওসার, হিসাব রক্ষন অফিসার রাসেল, হিসাব রক্ষন অফিসার সালাউদ্দিন, সিনিয়র এপিআরও কামরুজ্জামান, হেলপার শারমিন খাতুন, রেজাউল , হিসাব রক্ষক মজিদ, সহ হিসাব রক্ষক গৌতম, শ্রমিক আশরাফুল, কার্পেন্টার মাসুদ রানা করোনা পজেটিভ হয়ে বাড়িতে আছেন।

 

 

আর যারা চাকুরী হারানোর ভয় পাচ্ছেন তারা করোনা পজেটিভ হওয়ার পরও পরীক্ষা করাতে যাচ্ছেন না। যারা আক্রান্ত হয়েছেন তাদের বাড়িতে এখন পর্যন্ত বিআরবি পক্ষ থেকে কোন খোঁজ খবর নেয়া হয়নি বলে জানা গেছে। এদিকে তাদের চিকিৎসার জন্যও বিআরবি’র পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। নাম প্রকাশ না করার শর্তে করোনা আক্রান্ত এক অফিসার বলেন, বিআরবি’র বিষেশায়িত হাসপাতাল রয়েছে কিন্তু তাদের চিকিৎসা না দিয়ে বাড়িতে আইসোলেশনে রেখে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়া হচ্ছে।

 

 

এদিকে কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার কালিকলিদাহ পুলিশ ক্যাম্পের এক পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়, দৌলতপুর উপজেলার খলিসাকুন্ডি পুলিশ ক্যাম্পের ৫ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়। পূর্বালী ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংকের কর্মকর্তারাও আক্রান্ত হয় করোনায়। পুলিশ ক্যাম্প এবং একাধিক ব্যাংক লগডাউন করে প্রশাসন। গত কয়েকদিন কুষ্টিয়ায় যে সকল আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে তাদের অধিকাংশ বিআবি’র। প্রথমদিকে কর্মকর্তা কর্মচারীরা তাদের ঠিকানায় বিআরবি উল্লেখ করলেও পরে তাদের নিষেধ করা হয় বিআরবি ঠিকানা ব্যবহার করতে। কুষ্টিয়ায় এ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৭৮৯। এর মধ্যে কুষ্টিয়া সদরে সবচেয়ে বেশী। মারা গেছেন ১১ জন। তার মধ্যে বিআরবির কর্মকর্তা ৩ জন।

 

 

 

এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জোবায়ের হোসেন চৌধুরী বলেন, শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীনে বিআরবি একটি বড় প্রতিষ্ঠান। সরকারী সিদ্ধান্ত হলে লগডাউনের ব্যবস্থা করা হবে।

 

 

এ ব্যাপারে বিআরবি গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মজিবর রহমানের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, যারা মারা গেছেন তারা কেউ কর্মরত অবস্থায় মারা যাননি। আর যারা আক্রান্ত তাদের হোম আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে।






এ জাতীয় আরো খবর ....




মাথাভাঙ্গা নদীর তীরে মানুষের ভীড়

Archives

MonTueWedThuFriSatSun
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031   
       
      1
9101112131415
16171819202122
30      
   1234
262728293031 
       
 123456
282930    
       
     12
10111213141516
31      
  12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  
       
891011121314
2930     
       
    123
45678910
11121314151617
18192021222324
       
  12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930   
       
      1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031     
     12
3456789
10111213141516
17181920212223
242526272829 
       
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
x
x